বরুড়ার খোশবাসে পারিবারিক বিরোধের জের ধরে ফসলি ধান লুটসহ খড়ের পাড়ায় আগুনের অভিযোগ

সাইফুল ইসলাম ফয়সাল:
কুমিল্লার বরুড়া উপজেলার দক্ষিন খোশবাস ইউনিয়নের মহেশপুর গ্রামের ঘোড়ালাল মিয়ার বাড়িতে পারিবারিক সম্পতির বিরোধের জের ধরে দুই পরিবারের মাঝে ঝগড়ার এ পযায়ে  মঙ্গলবার সকালে আব্দুল মান্নান(৬৫)এর ধানের জমির ধান কেটে নিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।তাছাড়া একই দিনে রাত আনুমানিক আড়াইটায় অভিযোগকারি আব্দুল মান্নানের বসতঘরের থড়ের পাড়ায় আগুন লাগিয়েছেন বলেও অভিযোগ করেছে আঃ মান্নান ।
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়,বেশ কিছুদিন ধরে অভিযোগকারী আব্দুল মান্নান ও তার ভাই আঃ রাজ্জাকের মাঝে সম্পতি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে।বছর কয়েক আগে আঃ রাজ্জাক মারা গেলে তার প্রবাসী পুত্র আবুল বাশারের সাথে বিরোধ হয়।এ নিয়ে বিভিন্ন সময়ে বাড়ির ঘর দরজা ভাঙ্গচুর হয় বলে কয়েকজন প্রতিবেশি জানান।সাম্প্রতিক সময়ে সম্পতি নিযে পারিবারিক কোন্দল বেড়ে চলছে।এ সম্পতির বিষয়ে অনেকদিন যাবৎ মামলাও চলছে বলে তাদের থেকে জানা যায়।
দুই পরিবারের লোকজনের সাথে কথা হলে তারা,মূলত ত্রিশ শতক করে দুই দাগে ষাঁট শতক জমি নিয়ে দ্বন্ধের কথা শিকার করেন।
আব্দুল মান্নান বলেন,আমার দাবী ত্রিশ শতক জায়গা অথচ আমার  ভাতিজারা পুরো ষাট শতক জায়গা দখলে নিতে চায়।আমি আমার পাওনা ত্রিশ শতক জায়গা চাই।কিন্তু তারা আমার সম্পতি না দিয়ে গতকাল(মঙ্গলবার)  নাছির,আহাম আলীসহ এলাকার কিছু সন্ত্রাসী নিয়ে আমার ফসলি জমির পাকা ধান কেটে পাশের এলাকার আইয়ুবের বাড়িতে উঠায়।আমি আমার কষ্টে উৎপাদন করা ফসল বাড়িতে উঠাতে পারি নাই।তাছাড়া একইদিন রাতে আমার বসত ভিটার উপড়ে খড়ের পাড়ায় আগুন দিয়ে পুড়ে ফেলছে।যার স্বাক্ষী এলাকাবাসী।
এ দিকে প্রতিপক্ষ আঃ রাজ্জাকের স্ত্রী ও মেয়ের সাথে কথা হলে তারা আঃ মান্নানের জমির ফসল কেটে ফেলা ও খড়ের পাড়ায় আগুনের ঘটনা সম্পূনভাবে অস্বীকার করে  উল্টো অভিযোগ করে বলেন,আব্দুল মান্নানের ছেলে সিঙ্গাপুর প্রবাসী সুমন মিয়া উম্মে কুলছুম কুসুম নামে আমার পুত্রবধূকে বেধর মারধর করেছে।আমার পুত্রবধূ বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স এ চিকিৎসাধীন আছে।
এ বিষয়ে বরুড়া থানাতে নারী নিযাতনের মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে তারা জানান।
এ বিষয়ে প্রতিবেশীদের সাথে কথা হলে তারা বলেন,আসলে মূলত জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে এত কিছু ।এই দুই পরিবার আপন দুই ভাইয়ের ওয়ারিশ।তারা কিছুদিন পরপর নিজেরাই মারামারি করে।এই ঘটনার বিষয়টি ওয়ার্ডে স্থানীয় মেম্বার কে জানান।

1,496 total views, 1 views today

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Lost Password?